খানসামা উপজেলায় দ্বিতীয় বিয়ে করতে এসে….!

প্লাবন গুপ্ত শুভ, ফুলবাড়ী দিনাজপুর প্রতিনিধি
দিনাজপুরের  খানসামা উপজেলার পল্লীতে দ্বিতীয় বিয়ে করতে এসে বর, কনের পিতা ও বিয়ের ঘটকের কারাদন্ড দেয়ার ঘটনা ঘটেছে। এ ঘটনাটি গত ২৭ নভেম্বর শুক্রবার রাত আনুমানিক পৌঁণে ১১টায় উপজেলার আলোকঝাড়ি ইউনিয়নের শুশুলি গ্রামের রাজকুমার মাষ্টারপাড়ায় ঘটেছে। জানা গেছে, দিনোবন্ধু রায়ের কন্যা নাবালিকা ও আলোকঝাড়ি উচ্চ বিদ্যালয়ের ৭ম শ্রেণির ছাত্রীর (১৪) সঙ্গে ওইগ্রামের বয়েজ মাষ্টারপাড়ার জগেশ্বর চন্দ্র রায়ের ছেলে হরিদাস চন্দ্র রায়ের (২৮) গোপনে বিয়ের আয়োজন করছিলেন। এঘটনা জানতে পেরে সিপিজি সদস্য, বিদ্যালয় শিক্ষক ও এসএমসির সদস্যরা ওই ছাত্রীর বাড়িতে গিয়ে তার পিতামাতাকে মেয়ের অল্প বয়সে বিয়ে দিলে যে ক্ষতি হয় তার বিস্তারিত আলোচনা করেন। তারপরেও মেয়ের অভিভাবকরা ওই ছাত্রীর সঙ্গে হরিদাসের ধুমধামে বিয়ের আয়োজন করছিলেন।  এ সংবাদ জানতে পেরে উপজেলা নির্বাহী অফিসার ও নির্বাহী ম্যাজিষ্টেট মো. সাজেবুর রহমান ওইবিয়ে অনুষ্ঠানে উপস্থিত হন এবং ভ্রাম্যমান আদালয়ের মাধ্যমে বাল্যবিবাহ নিরোধ আইনানুযায়ী বর হরিদাস চন্দ্র রায়কে ১ মাসের, মেয়ের পিতা দিনোবন্ধু রায়কে ১০দিনের এবং বিয়ের ঘটক কৃষ্ণ চন্দ্র রায়কে ১৫দিনের বিনাশ্রম কারাদন্ডাদেশ প্রদান করেন। ঘটনাটি এলাকায় চাঞ্চল্যের সৃষ্টি করেছে।

1 comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *