নীলঘণ্টা ফুল

নীলঘণ্টা ফুল
লেখা ও ছবি : মোহাম্মদ নূর আলম গন্ধী
নীলঘন্টা ঝাড় জাতীয় ঝোপালো আকার-আকৃতির ফুল গাছ । গাছের উচ্চতা গড়ে তিন থেকে পাঁচ ফুট হয়ে থাকে এবং এ উচ্চতা কোন কোন ক্ষেত্রে ছাঁটাই প্রক্রিয়ার উপরও নির্ভর করে। গাছের শাখা-প্রশাখা মঝারি শক্তমানের হয়। এর আদি নিবাস আমেরিকা। পরিবার-অপধহঃযধপবধব,উদ্ভিদ তাত্বিক নাম-ঞযঁহনবৎমরধ বৎবপঃধ। ঘন্টা আকৃতির এ ফুল পত্র কক্ষ হতে এক বা একাধিক ভাবে ফোটে । শীতকাল ছাড়া প্রায় সারা বছর জুড়ে গাছে ফুল ফোটে। তবে গ্রীষ্ম ও বর্ষায় গাছে বেশী পরিমাণে ফুল ফোটে। গাঢ় নীল বা বেগুনী এ দু’রঙের ফুল আমাদের দেশে ফোটতে দেখা যায় । নমনীয় কোমল পাপড়িদ্বয় পাঁচটি ভাগে বিভক্ত। ফুলের ভিতরের অংশ হলুদ রঙের এবং দলনল এর রং সাদা। ফুল গন্ধহীন। গাছের ছোট ছোট পাতা গাঢ় সবুজ রঙের, ত্রিকোণাকৃতির এবং অগ্রভাগ সূচালো। পারিবারিক বাগান ও অফিস-আদালত ও বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের বাগানে এ ফুল গাছ দেখা যায়। সরাসরি মাটি ও টবে সহজে চাষ উপযোগী ফুল গাছ। বাগানের আকর্ষনীয় শোভা দানে নীলঘণ্টা ফুলের তুলনা নেই। ডাল কাটিং এর মাধ্যমে এর বংশ বিস্তার করা যায়। রৌদ্র উজ্জল থেকে হাল্কা ছায়া যুক্ত স্থান এবং উঁচু ভূমি সহ প্রায় সব ধরনের মাটিতে এ ফুল গাছ জন্মে।

 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *