কটিয়াদীতে স্কুল শিক্ষকের বাসায় হামলার প্রতিবাদে ছাত্রীদের মহাসড়ক অবরোধ

মাইনুল হক মেনু, স্টাফ রিপোর্টার : কিশোরগঞ্জের কটিয়াদীতে স্কুল শিক্ষকের বাসায় হামলার প্রতিবাদে শহীদ স্মৃতি বালিকা বিদ্যালয়ের ছাত্রীরা ক্লাস বর্জন করে মঙ্গলবার সকাল সাড়ে ১১টা থেকে সাড়ে ১২টা পর্যন্ত জসিম স্যারের বাসায় হামলা কেন? জবাব চাই, বিচার চাই এ শ্লোগানটি হাতের লেখা ব্যানার নিয়ে ভৈরব-কিশোরগঞ্জ মহাসড়ক অবরোধ করে বিক্ষোভ মিছিল করে। এ সময় বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক মো. জসিম উদ্দিনরে ভাড়া বাসায় হামলাকারীদের দৃষ্টান্ত মূলক শাস্তির দাবী করে স্কুলের ছাত্রীরা।
জানা যায়, সোমবার সকালে শহীদ স্মৃতি বালিকা বিদ্যালয়ের দুজন ছাত্রী রিকশা যোগে ঐ স্কুলের বিএসসি শিক্ষক জসিম উদ্দিনের নিকট প্রাইভেট পড়তে তার বাসায় যাওয়ার সময় সড়ক দূর্ঘটনায় মারাত্মক ভাবে আহত হয়। দূর্ঘটনার পর সকাল ৯টার দিকে ঐ স্কুলের শিক্ষক মিজানুর রহমান হাবিবের উসকানীতে একদল দূর্বৃত্ত শিক্ষক জসিম উদ্দিনের বাসায় হামলা ও ভাংচুর করে। এর প্রতিবাদে স্কুলের ছাত্রীরা মঙ্গলবার স্কুলের সামনে মহা সড়কটি অবরোধ করে রাখে। এ সময় সড়কের উভয় পাশে দীর্ঘ যানজটের সৃষ্টি এবং জনদূর্ভোগ চরম আকার ধারণ করে। সংবাদ পেয়ে কটিয়াদী মডেল থানার পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে অবরোধকারী ছাত্রীদেরকে হামলাকারীদের বিচার চেয়ে জেলা প্রশাসক ও পুলিশ সুপার বরাবর স্মারক লিপি প্রদানের জন্য পরামর্শ দিলে ছাত্রীরা অবরোধ প্রত্যাহার করে নেয়। বিদ্যালয়ের দশম শ্রেণীর ছাত্রী সাবিনা আক্তার ও ফারজানা আঁখি জানায় জসিম উদ্দিন স্যার একজন আদর্শ ও নীতিবান শিক্ষক, তাঁর জনপ্রিয়তায় ঈর্ষান্বিত হয়ে তাকে হয়রানি করার জন্য এ হামলা চালানো হয়েছে, আমরা এ ঘটনার বিচার চাই। জামষাইট গ্রামের সাবেক ইউপি সদস্য আব্দুল আওয়াল জানান আমির উদ্দিন, মিজান, মজিবুর ও চুন্নুর নেতৃত্বে শিক্ষক জসিম উদ্দিনের বাসায় হামলা করেছে, আমি এ ঘটনার নিন্দা ও অপরাধিরে শাস্তি দাবী করছি। স্কুলের প্রধান শিক্ষক নজরুল ইসলাম জানান, সড়ক দূর্ঘটনায় ছাত্রী আহতের ঘটনাকে ভিন্ন খাতে প্রবাহিত করার জন্য কিছু দূর্বৃত্ত শিক্ষক জসিম উদ্দিনের বাসায় হামলা ও ভাংচুর করে। কটিয়াদী থানার ওসি জাকির রব্বানী বলেন, হামলার বিষয়টি আমার জানা নেই। শিক্ষকের বাসায় হামলাকারীদের শাস্তি প্রদানের কথা বললে ছাত্রীরা অবরোধ প্রত্যাহার করে নেয় এবং যান চলাচল স্বাভাবিক হয়।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *