জৈন্তাপুরে প্রতিপক্ষের হামলায় গুরুতর আহত ১ জন

বিশেষ প্রতিনিধি-সিলেটের জৈন্তাপুর উপজেলার (শ্রীপুর, আসামপাড়া, খড়মপুর) পাথর কোয়ারী দখলকে কেন্দ্র করে গত ৩ ডিসেম্বর সকাল ১১টায় পূর্ব প্রস্তুতি নিয়ে স্থানীয় আওয়ামীলীগের সহ-সভাপতি কামাল আহমদ ও সাধারন সম্পাদক লিয়াকত আলীর দুই গ্রুপের মুখামুখি অবস্থান নেয়। ফলে দু’গ্রুপের সংঘর্ষে ১ জন নিহত ও প্রায় ৫০জন আহত হয়েছে।
এ ঘটনায় নিহতের ভাই আমিন আহমদ বাদী হয়ে জৈন্তাপুর উপজেলা আ.লীগের সাধারণ সম্পাদক এম.লিয়াকত আলীকে প্রধান আসামী করে ৭৭জনের নাম উল্লেখ করে আরও অজ্ঞাত আসামী করে ৬ ডিসেম্বর বুধবার জৈন্তাপুর মডেল থানায় মামলা দায়ের করে (যাহার নং-০৬, তারিখঃ ০৬-১২-২০১৭)।
উপজেলার শ্রীপুর পাথর কোয়ারির দখলকে কেন্দ্র করে সংঘর্ষে নিহতের ঘটনায় জৈন্তাপুর মডেল থানায় মামলা দায়ের করার পর বাদী পক্ষের আত্মীয় স্বজনরা ঐ মামলার এফআইরভুক্ত আসামী কালা মিয়ার উপর হামলা চালায়।সেখান থেকে কালা মিয়াকে আশংকাজনক অবস্থায় সিলেট ওসমানী হাসপাতালে নিয়ে আসা হয়েছে।
প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, বুধবার রাত ৭টার দিকে স্থানীয় চতুল বাজার এলাকায় হত্যা মামলার এফআইআর ভুক্ত আসামী কালা মিয়াকে দেখতে পেয়ে তার উপর হামলা চালায় বাদী পক্ষের আত্মীয়স্বজন। এদের মধ্যে মৃত আজিজুল হকের ছেলে জামাল মিয়া, মুত রফিকুল হকের ছেলে এনাম এবং মৃত নুরুল হকের ছেলে মানিক মিয়ার নাম জানা গেছে।
এসময় তাদের হামলায় কালা মিয়ার মাথায় গুরুতর আঘাত পায়। ঘটনার পরপর তাকে জৈন্তাপুর স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যাওয়া হলে সেখানকার ডাক্তাররা আশংকাজনক অবস্থায় তাকে সিলেট এমএজি ওসমানী হাসপাতালে প্রেরণ করনে। কালা মিয়া বাড়ি উপজেলার দরবস্ত ইউনিয়নের ছাতারখাই গ্রামে। ঘটনার পরপরই পুলিশ এসে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *