নাটোরে শিক্ষকসহ প্রশ্নফাঁস চক্রের ৯জন কে ভ্রাম্যমান আদালতে জরিমানা

নাটোর প্রতিনিধি :
দাখিল পরীক্ষার প্রশ্নফাঁস ও নকল সরবরাহ করার অভিযোগে নাটোরে গুরুদাপুর উপজেলার শিকারপাড়া আলিয়া ফাজিল মাদ্রাসা এসএসসি পরীক্ষায় মাদ্রসারা বোর্ডের ইংরেজী দ্বিতীয় পত্রের পরীক্ষা ছিল সোমবার। পরীক্ষা শুরু হওয়ার পর গুরুদাসপুর উপজেলার মশিন্দা শিকারপাড়া ফাজিল মাদ্রসা কেন্দ্রে বাহির থেকে নকল সরবরাহ করছিল শিক্ষক সহ বেশ কয়েকজন ছাত্র। এসময় শিক্ষকসহ ৯ জনকে জরিমানা করেছে ভ্রাম্যমান আদালত। সোমবার দুপুরে জেলার গুরুদাসপুর এলাকায় এই ঘটনা ঘটে।
গুরুদাসপুর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মনির হোসেন আদালত পরিচালনা করেন।
নাটোর র‌্যাব অফিসের কোম্পানী কমান্ডার এএসপি আউয়াল হোসেন খান বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।
এএসপি আউয়াল হোসেন খান জানান, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে নাটোর র‌্যাব অফিসের একটি দল গুরুদাসপুর উপজেলার শিকারপাড়া এলাকায় এক অভিযান চালায়। শিকারপাড়া আলিয়া ফাজিল মাদ্রাসা এলাকায় দাখিল পরীক্ষা চলাকালে নকল সরবরাহ ও প্রশ্নফাঁস চক্রের সাথে সম্পৃক্ত অভিযোগে ওই মাদ্রাসার শিক্ষক, স্থানীয় চন্দ্রপুর এলাকায় কছিমুদ্দিনের ছেলে শাকিম হোসেন (৩৪),মশিন্দা বাহাদুরপাড়া এলাকার মোহাম্মদ আলীর ছেলে শওকত আলী (৪০), ঝাউপাড়ার আব্দুল জলিলের ছেলে আলমগীর হোসেন (৩০), বাহাদুরপাড়া এলাকার রেকাত আলীর ছেলে আমজাদ মিয়া (৪৮), শিকারপাড়ার ছইমুদ্দিনের ছেলে আয়নাল হক (৫০), জোমাই নগর এলাকার ওমর আলীর ছেলে তরিকুল ইসলাম (২০),বাহাদুরপাড়া এলাকার সালেমের ছেলে ফরহাদ আলী (২০),জোমাইনগর এলাকার সালাম উদ্দিনের ছেলে হারেজ আলী (২০) এবং বড়াইগ্রাম উপজেলার পারকোল এলাকার জামাল উদ্দিনের ছেলে আরিফ হোসেন (২০) কে আটক করা হয়।
এসময় ভ্রাম্যমান আদালতের মাধ্যমে পাবলিক পরীক্ষা নিয়ন্ত্রণ আইন ১৯৮০ এর ১১ ধারার অপরাধে শাকিম হোসেন, শওকত আলী, আলমগীর হোসেন ও আমজাদ মিয়াকে ৫০ হাজার এবং অন্যান্য আসামীদের ২৫ হাজার করে মোট ৩ লাখ ২৫ হাজার টাকা জরিমানা করেন আদালতের বিচারক মনির হোসেন।

1,242 total views, 7 views today

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.