হোসেনপুরে ৬ শতাধিক এমপিওভুক্ত শিক্ষক-কর্মচারী বৈশাখি ভাতা না পেয়ে আনন্দ থেকে বঞ্চিত

স্টাফ রিপোর্টার : পহেলা বৈশাখের পেড়িয়ে গেলেও ব্যাংক কতৃপক্ষের গাফিলতির কারনে কিশোরগঞ্জের হোসেনপুর উপজেলার ৩৮টি স্কুল,কলেজ ও মাদ্রাসার প্রায় ছয় শতাধিক এমপিওভুক্ত শিক্ষক-কর্মচারী বৈশাখি ভাতা উত্তোলন করতে না পেরে বাংলা নববর্ষ-১৪২৬ এর আনন্দ থেকে বঞ্চিত রয়েছেন। তাই ভুক্তভোগী শিক্ষক-কর্মচারীরা খুব দ্রুত সময়ে বৈশাখি ভাতা পেতে সংশ্লিষ্ট উর্ধ্বতন কতৃপক্ষের সু-দৃষ্টি কামনা করে জরুরি প্রতিকার চেয়েছেন।
সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানাযায়, মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা অধিদপ্তরের এমপিও শাখা থেকে প্রেরিত প্রজ্ঞাপনে ১১ এপ্রিল ব্যাংক থেকে টাকা উত্তোলনের শেষ সময় উল্লেখ থাকলেও গতকাল সোমবার (১৫ এপ্রিল) পর্যন্ত ব্যাংকে অর্ডার শীট না আসায় এসব শিক্ষক-কর্মচারীরা বৈশাখি ভাতা উত্তোলন করতে না পেরে দীর্ঘক্ষণ ব্যাংকের সামনে বসে থেকে ব্যর্থ মনোরথে বাড়ি ফিরে গেছেন। শিক্ষকদের অভিযোগ দেশের অন্যান্য স্থানে গত ১১ এপ্রিল বৈশাখি ভাতা উত্তোলন করতে পারলেও হোসেনপুর উপজেলায় শুধু অগ্রণী ব্যাংক কতৃপক্ষের গাফিলতির কারনে তারা বৈশাখি ভাতা উত্তোলন করতে পারেননি।
উপজেলা শিক্ষক সমিতির সভাপতি মোঃ মঞ্জুর আহম্মেদ এ বিষয়ে ক্ষুব্দ প্রতিক্রিয়া ব্যক্ত করে বলেন, শুধু বৈশাখি ভাতাই নয় অনেক ক্ষেত্রে তাদের উদাসীনতায় ঈদের আগে উৎসব ভাতা পেতেও বিলম্ব হয়। তাই তিনি এ সমস্যা নিরসনে অগ্রনী ব্যাংকের উর্ধ্বতন কতৃপক্ষের সু-দৃষ্টি কামনা করেন।
এ ব্যাপারে হোসেনপুর অগ্রণী ব্যাংকের শাখা ব্যাবস্থাপক মোঃ জয়নাল আবেদীন জানান, এটি তাদের কোনো গাফিলতি নয়, তিনদিন বন্ধের কারনে হেড অফিস থেকে অর্ডার শীট আসতে বিলম্ব হওয়ায় শিক্ষক-কর্মচারীরা ১৫ এপ্রিলেও বৈশাখি ভাতা উত্তোলন করতে পারেনি।তবে শিঘ্রই অর্ডার শীট আসার সম্ভবনা রয়েছেন বলেও মন্তব্য করেন তিনি।

230 total views, 3 views today

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.