সেমিফাইনালে অস্ট্রেলিয়া, বিপাকে ইংল্যান্ড

বিশ্বকাপে অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে হারের বৃত্তেই আটকে থাকলো ইংল্যান্ড। ১৯৯২ সালের পর থেকে যে হারের শুরু তারই পুনরাবৃত্তি হলো ইংল্যান্ডের লর্ডসে। কাগুজে হিসাবনিকাশে রান রেটের ক্ষীণ আশঙ্কা বাদ দিলে সেমিফাইনাল নিশ্চিত পাঁচবারের বিশ্ব চ্যাম্পিয়নদের। অন্যদিকে এই ম্যাচে হারের মধ্য দিয়ে সেমিফাইনালের স্বপ্ন অনেকটাই ফিকে হয়ে গেল স্বাগতিকদের। পরের দুই ম্যাচে নিউজিল্যান্ড ও ভারতকে হারাতে না পারলে লেগ পর্বেই শেষ হয়ে যাবে স্বাগতিকদের বিশ্বকাপ, যদি বাকি ম্যাচগুলো জিতেই যায় শ্রীলঙ্কা, বাংলাদেশ ও পাকিস্তানের যেকোনো একজন।

ইংল্যান্ডের জন্য ভয়ের কথা, ১৯৮৩ সালের পর থেকে বিশ্বকাপে পাঁচবারের দেখায় প্রতিবারই নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে হেরেছে দলটি। আর ভারতের বিপক্ষেও সবশেষ জয় সেই ১৯৯২ সালে। এরপর দুইবারের দেখায় পেতে হয়েছে পরাজয়ের স্বাদ। নিজেদের সাত ম্যাচ থেকে চার জয়ে আট পয়েন্ট নিয়ে টেবিলের চতুর্থস্থানে বসে থাকলেও তার খুঁটি খুবই নড়বড়ে। এই জায়গায় উঠে আসার জন্য ভালোভাবে লড়াইয়ে আছে টেবিলের পঞ্চম, ষষ্ঠ ও সপ্তম দল বাংলাদেশ, শ্রীলঙ্কা ও পাকিস্তান।

অস্ট্রেলিয়া যেভাবে সেমিফাইনালে…

সাত ম্যাচ থেকে ১২ পয়েন্ট নিয়ে টেবিলের শীর্ষ দল অস্ট্রেলিয়ার সেমিফাইনালের টিকিট বলতে গেলে নিশ্চিত। শুধুমাত্র যদি তারা নিজেদের দুই ম্যাচে বড় ব্যবধানে হারে এবং লঙ্কানরা বাকি তিন ম্যাচ জেতে, সেক্ষেত্রে অস্ট্রেলিয়ার সাথে বসতে পারে রান রেটের হিসাবে। একই শর্ত ইংল্যান্ডের ক্ষেত্রেও প্রযোজ্য। বাকি দুই ম্যাচ জিতলে অস্ট্রেলিয়ার সমকক্ষ হতে পারবে ইংল্যান্ড। অন্য দুই দল বাংলাদেশ ও পাকিস্তান নিজেদের তিন ম্যাচে জিতলেও অস্ট্রেলিয়াকে ছুঁতে পারবে না। সেই বিবেচনায় বলাই যায়, অস্ট্রেলিয়ার সেমিফাইনাল খেলা নিশ্চিত। এছাড়া নিউজিল্যান্ড ও ভারত কাগজে কলমে নিশ্চয়তা লাভ না করলেও তাদের সেমিফাইনালও অনেকটাই নিশ্চিত। ছয় ম্যাচ থেকে ১১ পয়েন্ট নিয়ে টেবিলের দ্বিতীয় স্থানে নিউজিল্যান্ড। আর পাঁচ ম্যাচ থেকে ৯ পয়েন্ট নিয়ে টেবিলের তৃতীয়স্থানে থাকা ভারত রয়েছে বেশ সুবিধাজনক অবস্থানে।

ইংল্যান্ডের হারে প্রশস্ত হলো যাদের পথ…

স্বাগতিকদের টানা দ্বিতীয় হারে সেমিফাইনালের পথ উন্মুক্ত হলো শ্রীলঙ্কা, বাংলাদেশ ও পাকিস্তানের সামনে। ইংল্যান্ড ও শ্রীলঙ্কা দুইদলই তাদের বাকি ম্যাচ জিতলে পৌঁছাবে ১২ পয়েন্টে। অন্যদিকে ইংল্যান্ড দুই ম্যাচের একটিতে জিতলে হবে ১০ পয়েন্ট এবং বাংলাদেশ ও পাকিস্তান তাদের বাকি ম্যাচগুলো জিতলে হবে ১১ পয়েন্ট। তাই এই পরাজয়ের ফলে তিনটি দল স্বপ্ন দেখতেই পারে সেমিফাইনালে যাওয়ার। বাংলাদেশ, ইংল্যান্ড ও শ্রীলঙ্কার সামনে দাঁড়িয়ে শক্ত প্রতিপক্ষ ভারত। যেখানে পয়েন্ট হারানোর আশঙ্কা আছে সবার। ভারত তাদের বাকি চার ম্যাচের আট পয়েন্টের সবটুকু ছিনিয়ে নিলে সেমিফাইনাল স্বপ্নে আছাড় খাবে বাংলাদেশ, শ্রীলঙ্কা ও ইংল্যান্ড। সেই জায়গা কিছুটা নিশ্চিন্তে থাকতেই পারে পাকিস্তান। তাদের সামনে প্রতিপক্ষ আফগানিস্তান, বাংলাদেশ ও নিউজিল্যান্ড।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.