চুয়াডাঙ্গায় জগন্নাথদেবের রথযাত্রা মহোৎসব অনুষ্ঠিত

চুয়াডঙ্গা সংবাদদাতা : প্রতিবছরের ন্যায় এবারও চুয়াডাঙ্গাতে জগন্নাথদেবের রথযাত্রা মহোৎসব-২০১৯ অনুষ্ঠিত হয়েছে। (৪-জুলাই) বৃহস্পতিবার বিকাল সাড়ে চারটায় আন্তজার্তিক কৃষ্ণভাবনামৃত সংঘ (ইস্কন) চুয়াডাঙ্গার আয়োজনে বড় বাজার শ্রী শ্রী সত্য নারায়ণ মন্দিরের সামনে থেকে একটি রথযাত্রা বের হয়। এর আগে মন্দির প্রাঙ্গনে এক ধর্মীয় আলোচনাসভা অনুষ্ঠিত হয়। সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে ছিলেন চুয়াডাঙ্গা জেলা প্রশাসক গোপাল চন্দ্র দাস। বিশেষ অতিথি হিসেবে ছিলেন চুয়াডাঙ্গার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (প্রশাসন) কানাইলাল সরকার, বাংলাদেশ পূজা উদ্যাপন কমিটি চুয়াডাঙ্গা জেলা শাখার আহ্বায়ক কিশোর কুমার আগরওয়ালা, যুগ্ম আহ্বায়ক প্রশান্ত অধিকারী ও সদস্য সচিব কিশোর কুমার কুন্ডু। আলোচনা সভা শেষে এ রথযাত্রা বের হয়ে শহরের প্রধান প্রধান সড়ক প্রদিক্ষণ করে একই স্থানে এসে শেষ হয়। আগামী সাত দিন পর উল্টো রথযাত্রার মধ্যে দিয়ে এ অনুষ্ঠানের সমাপ্তি হবে।
আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে জেলা প্রশাসক গোপাল চন্দ্র দাস বলেন, এখানে আসার পর জেনেছি, চুয়াডাঙ্গা শহরে প্রতিমা বির্সজন ঘাট নেই। অতিদ্রুতই চুয়াডাঙ্গাতে ঘাট নির্মাণ করা হবে। মুক্তি লাভ ও শান্তিকামনায় জগন্নাথ দেবের রথযাত্রা করা হয়ে থাকে। আমরা এ রথযাত্রায় কামনা করি বাংলাদেশের মঙ্গল। বাংলাদেশ যেন অতিদ্রুই বিশ্বের দরবারে একটি উন্নত রাষ্ট্র হিসেবে প্রতিষ্ঠা পায় সেই কামনায় এবারের রথযাত্রা হোক।
সনাতন ধর্মাবলম্বীদের বিশ্বাস, জগন্নাথ দেব হলেন জগতের নাথ বা অধীশ্বর। জগৎ হচ্ছে বিশ্ব আর নাথ হচ্ছেন ঈশ্বর। তাই জগন্নাথ হচ্ছেন জগতের ঈশ্বর। তার অনুগ্রহ পেলে মানুষের মুক্তিলাভ হয়। জীবরূপে তাকে আর জন্ম নিতে হয় না। এ বিশ্বাস থেকেই রথের ওপর জগন্নাথ দেবের প্রতিমূর্তি রেখে রথ নিয়ে যাত্রা করেন সনাতন ধর্মাবলম্বীরা।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.