শ্রীপুরে প্রেমের কারণে মাদরাসা ছাত্রীকে গলা কেটে হত্যার চেষ্টা

শ্রীপুর (গাজীপুর) থেকে আকতার হোসেন:

শ্রীপুরে প্রেম গঠিত মাদরাসা ছাত্রীকে গলা কেটে হত্যার চেষ্টা। ২৫ জুলাই বৃহস্পতিবার সকাল বেলা বাড়ী থেকে মাদ্রাসা আসার পথে পটকা জঙ্গলে পৌছা মাত্রই একই ক্লাসের ছাত্র গলা কেটে হত্যা করার চেষ্টার ঘটনা ঘটায়। এ ব্যাপারে আহত ছাত্রীর মাতা বাদী হয়ে ঐ ছাত্রর বিরুদ্ধে থানা অভিযোগ দায়ের করেছে। আহত ছাত্রীকে গাজীপুর সদর শহিদ তাজউদ্দিন হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছে।
ঘটনার পর পরই শ্রীপুরসহ আশপাশের এলাকায় এ খবর জানাজানি হলে হাজার হাজার উৎসুক জনতা আহত ছাত্রীকে দেখতে হাসপাতালে ভিড় জমায়। খবর পেয়ে শ্রীপুর থানা পুলিশ ও উপজেলা প্রশাসন হাসপাতালে ছাত্রীকে দেখতে যায়। পরে পুলিশের সহযোগীতায় আহত ছাত্রীকে প্রাথমিক চিকিৎসা শেষে গাজীপুর হাসপাতালে রেফার্ড করে।
জানা যায়, উপজেলার গোসিংগা ইউনিয়নের পাঁচুলটিয়া গ্রামের পটকা দাখিল মাদরাসার নবম শ্রেনীর ছাত্রী সুমাইয়া (১৫) প্রতিদিনের মত মাদরাসায় যাওয়ার সময় পটকা গ্রামের খোকনের বাড়ির পাশে রাস্তায় পৌঁছলে দুস্কৃতিক ধারালো ছুড়া দিয়ে ওই ছাত্রীকে গলায় পুঁচ দিয়ে পালিয়ে যায়। পরে স্থানীয় ব্যবসায়ী কবির হোসেন তাকে উদ্ধার করে দ্রæত শ্রীপুর উপজেলা হাসপাতালে নিয়া আসে। আহত ছাত্রীর মাতা মোছা: জোসনা বেগম জানান একই ইউনিয়নের মাটিয়াগাড়া গ্রামে রফিকুল ইসলামের ছেলে ঐ মাদ্রাসার দশম শ্রেনীর ছাত্র রেজুয়ান প্রেমের প্রস্তাব দিলে ছাত্রী প্রত্যাক্ষন করলে এ ঘটনা ঘটে।
শ্রীপুর উপজেলা সহকারি কমিশনার (ভূমি) মো: শামসুল আরেফিন জানান, প্রেমের সম্পর্কের কারনে ঘটনাটি ঘটেছে। এটি কোন গুজব না। প্রেম ঘটিত বিষয়ের জেরে এটি ঘটেছে। এ বিষয়ে সকলকে বিভ্রান্তি না ছড়ানোর জন্য অনুরোধ জানিয়েছেন। এস.আই রাহাদুজ্জামান জানান মামলার প্রস্ততি চলছে ও আসামী গ্রেফতারের অভিযান অব্যাহতি রয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.