ঈদকে সামনে রেখে মাদক সম্রাট পিন্টুর সিন্ডিকেট বেপরোয়া

 চুয়াডাঙ্গা প্রতিনিধি: চুয়াডাঙ্গা দামুড়হুদা উপজেলা সদরে ঈদকে সামনে রেখে মাদক সম্রাট পিন্টুর সিন্ডিকেট বেপরোয়া হয়ে উঠেছে।
জানাগেছে,দামুড়হুদা সদর সহ উপজেলা সহ জেলা সদর ও আলমডাঙ্গায় জন মারফত মোবাইলে অর্ডার নিয়ে জন মারফত পৌছে দিচ্ছে বলে একাধিক অভিযোগ রয়েছে।দামুড়হুদায় এ সিন্ডকেট  মাদকের ভয়াবহ রুপে পরিনত করেছে। দেশব্যাপী মাদকের লাল কার্ডের ঘোষনা থাকলেও পিন্টুর সিন্ডকেট আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর চোখ ফাকি দিয়ে মাদকের ভয়বহ বিস্তার ঘটিয়েছে ।দামুড়হুদা উপজেলা সদরের গুলশান পাড়ার আনছার মোল্লার ছেলে চিনিত্ব  মাদক ব্যাবসায়ী মো:পিন্টু(২০) দীর্ঘঘদিন ধরে সিন্ডিকেটর মাধ্যমে এলাকায় মাদক বিক্রয় করে আসছেন।এলাকায় উঠতি যুবক সহ সচেতন মহলের অভিযোগের পেক্ষিতে জানা যাই, পিন্টু তার সিন্ডিকেট  তৈরি করে আইনের চোখ ফাকি দিয়ে সীমান্ত হতে মাদক এনে ব্যাবসা চালিয়ে যাচ্ছে। পিন্টুর সিন্ডিকেটের সদস্য  হিসাবে উঠে এসেছে পুলশানপাড়ার সবুজ, জুয়েলের নাম। এ সিন্ডিকেটে রয়েছে আরো কয়েকজন।পিন্টু অবৈধ পথ দিয়ে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর  চোখ ফাকি দিয়ে অটো গাড়ির মাধ্যমে জন মারফতে মরনব্যাধী ফেন্সিডিল ও ইয়াবা এনে ব্যাবসা চালিয়ে আসছে।পিন্টু বেশ কিছুদিন আগেও দামুড়হুদা মডেল থান পুলিশের হতেও আটক হয় মাদক সহ এরপর পুলিশ জেল হাজতে প্রেরন করনে। দীর্ঘ ৬ মাস পর জামিনে মুক্ত পেয়ে আবারো মাদক ব্যবসায় লিপ্ত হন।পিন্টু মাদকের অর্ডার মোবাইল ফোনে পাওয়ার পর দামুড়হুদা গাল্স স্কুলের অডিটোরিয়ামের গলি ও আর নিজ বাড়ির সামনে সিন্ডিকেটের সাহায্যে পৌছে দিচ্ছে মাদক।পিন্টুর মাদক ব্যাবসার ফলে এলাকার যুব সমাজ ধ্বংসের দিকে ধাবিত হচ্ছে।  গত শুক্রবার  দৌনিক সকালের সময় প্রএিকায় পিন্টর মাদক ব্যাবসার সংবাদ প্রকাশিত হয়েছে।জেলার  সুজগ্য পুলিশ সুপারের কাছে  সচেতন মহলের দাবী পিন্টুর মতো মাদক কারবারি এবং তার সিন্ডিকেটের সকলে আইনের আওতায় এনে কঠিন শাস্তির ব্যাবস্হা করা হোক।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.