ইটনা ধনু নদীর জেটি ঘাটের উত্তর পাড় থেকে দরখার বিল পর্যন্ত খাল খনন একান্ত প্রয়োজন

এম, তাজুল ইসলাম, ইটনা কিশোরগঞ্জ প্রতিনিধিঃ- ইটনা ধনু নদীর জেটি ঘাটের উত্তর পাড় থেকে দরখার বিল
পর্যন্ত খালটি পুনঃ খনন করা একান্ত প্রয়োজন হয়ে দাড়িয়েছে। এক সময় খালের পানি দিয়ে দুই পার্শ্বের হাজার
হাজার জমিতে সেচ দেওয়া হলেও কালের বিবর্তনে দরখার খালটি ভরাট হয়ে যাওয়ায় কৃষকগণ নির্ধারিত সময়
পর্যন্ত খাল থেকে সেচের পানি বোরো আবাদি জমিতে দিলেও পরে নলকুপের মাধ্যমে মেশিনে পানি তুলে সেচ
কাজ পরিচালনা করতে হয়। এতে করে কৃষকগণ বোরো আবাদ করতে খরচ বেড়ে যায়। আবার কিছুজমি আছে
যে সব জমিতে নলকূপের পানি দেওয়া সম্ভব হয় না। বিধায় বৃষ্টির পানির উপর নির্ভর করতে হয়। এ অবস্থায়
কৃষকগণ একটা শঙ্কার মধ্যে সময় অতিবাহিত করে। অপর দিকে বোরো ধান কাটার পর ক্সবশাখ মাসে খালে পানি
না থাকায় ধান কেটে নৌকায় করে আনাও সম্ভব হয় না। এতে করে কৃষকগণ খুব চড়া দামে ধান কর্তন করতে
হয়। এছাড়া ফিরা গাং হইতে বেকা বিলের উত্তর মাথা পর্যন্ত খালটিও পুনঃ খনন করা একান্ত প্রয়োজন হয়ে
দাড়িয়েছে। এমতাবস্থায় ইটনা ধনু নদীর জেটি ঘাটের উত্তর পাড় হইতে দরখার বিল পর্যন্ত খালটি ও ফিরা গাং
হইতে বেকা বিলের উত্তর মাথা পর্যন্ত ৫ কিলোমিটার খালটি পুনঃ খননের দাবি জানাচ্ছে দুই খালের বোরো
আবাদি কৃষকগণ। এতে বোরো আবাদি হাজার হাজার কৃষকের এক দিকে যেমন সহজে সেচের ব্যবস্থা হবে,
অপরদিকে বোরো কর্তন মৌসুমে ধান কেটে খুব সহজেই খলায় তুলতে সক্ষম হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.