পূর্বধলায় আলমগীর হোসেন হত্যার সাথে জড়িত খুনীদের বিচারের দাবিতে মানববন্ধন

সাদ্দাম হোসেন, পূর্বধলা (নেত্রকোনা) প্রতিনিধি:
নেত্রকোণার পূর্বধলায় কেরাম খেলাকে কেন্দ্র করে প্রতিপক্ষের হামলায় আলমগীর হোসেন হত্যার সাথে জড়িত খুনীদের অবিলম্বে বিচারের আওতায় আনা এবং দৃষ্টান্তমূলক শান্তি নিশ্চিত করার দাবিতে মানববন্ধন করেছে পূর্বধলা উপজেলার হোগলা ইউনিয়নবাসী। শনিবার (১৭ আগষ্ট) দুপুরে সাধুপাড়া বাজারের হোগলা ইউনিয়ন পরিষদের সামনে এই মানববন্ধনটি অনুষ্টিত হয়।
এসময় উপস্থিত ছিলেন, উপজেলা যুবলীগের সাবেক আহŸায়ক মাসুদ আলম তালুকদার টিপু, হোগলা ইউপি চেয়ারম্যান সিরাজুল ইসলাম আকন্দ, সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান আজিজুর রহমান তালুকদার, প্রভাষক সেলিম জাহাঙ্গীর, সুকান্ত সরকার রঞ্জন, মোস্তাক আহমেদ খান, মুক্তিযোদ্ধা আঃ জলিল, আসরাফ, লিটন, মাইনুদ্দিন প্রমুখ।
পূর্বধলা থানার অফিসার ইনচার্জ মোহাম্মদ তাওহীদুর রহমান জানান, নিহত আলমগীরের বড় ভাই চান মিয়া বাদী হয়ে ১২ জনকে আসামী করে একটি মামলা দায়ের করেন। পুলিশ রিপন মিয়া নামে এক আসামীকে গ্রেফতার করেন।
উল্লেখ্য, গত বুধবার সন্ধ্যায় সাধুপাড়া ও ভিকুনীয়া গ্রামের কয়েকজন যুবক স্থানীয় ভিকুনীয়া বাজারে কেরাম খেলতে যান। কেরাম খেলার একপর্যায়ে দু’পক্ষে কথা কাটাকাটি শুরু হলে প্রতিপক্ষের লোকজন আলমগীরের ওপর হামলা চালায়। এ সময় আলমগীরকে তোফাজ্জল হোসেন খান তাপস ও হায়দার খান এর নেতৃত্বে রানা মিয়া, সাগর খান, মিজান খান, ডাঃ সবুজ, ডাঃ হবি, মিয়াদ খান, আকিকুল, আরমান খান, মোহিম খান, তারা মিয়া, দোহা, রাকিব ও মিরাস এলোপাতাড়ি কিলিয়ে ও পিটিয়ে গুরুতর জখম করে। স্থানীয় লোকজন আহত অবস্থায় তাকে উদ্ধার করে প্রথমে পূর্বধলা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স ও পরে ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেয়ার পথে বৃহস্পতিবার দিবাগত রাত ১২টার দিকে আলমগীর মারা যায়। নিহত আলমগীর ইউনিয়নের সাধুপাড়া গ্রামের আব্দুল খালেকের ছেলে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.