পত্নীতলায় আদিবাসী ২ যুগল প্রেমীকের গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা

দিলিপ চৌহান, পত্নীতলা (নওগাঁ) প্রতিনিধিঃ প্রেমের সম্পর্ক পরিবার থেকে মেনে না নেয়ায় পত্নীতলায় আদিবাসী ২ যুগল প্রেমীকের গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যার ঘটনা ঘটেছে। শনিবার ভোররাতে উপজেলার কৃষ্ণপুর ইউপির গোপীনগর সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সন্নিকটে ঈদগাহ মাঠের একটি আম গাছে গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যার ঘটনাটি ঘটে।

এলাকাবাসী ও থানা সূত্রে জানাগেছে, নজিপুর মহিলা ডিগ্রী কলেজের দ্বাদশ শ্রেনীর ছাত্রী উপজেলার কৃষ্ণপুর ইউপির গোপীনগর আদিবাসী এলাকার পরান মুর্মুর মেয়ে কাজলী মুর্মু (১৮)এর সাথে পত্নীতলা উচ্চ বিদ্যালয়ের ৯ম শ্রেনীতে অধ্যয়নরত একই এলাকার পাশ্ববর্তী বাড়ির সুধীর হেমব্রমের ছেলে জয় হেমব্রম (১৭)র সাথে দীর্ঘদিন যাবৎ প্রেমের সম্পর্ক চলে আসছিল। এঅবস্থায় শুক্রবার রাতে কাজলীর পরিবারে বিষয়টি জানাজানির পর তার পরিবার তা মেনে না নিলে শনিবার ভোররাতে কাজলী ও জয় গোপীনগর সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সন্নিকটে ঈদগাহ মাঠের একটি আম গাছে গলায় ফাঁস দিয়ে এক সাথে আত্মহত্যা করে। সকালে এলাকাবাসী গলায় ফাঁস দেয়া অবস্থায় তাদের মৃতদেহ গাছে ঝুলে থাকতে দেখতে পেয়ে থানায় খবর দিলে পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে তাদের মৃতদেহ উদ্ধার করে।

এবিষয়ে উক্ত ইউপি চেয়ারম্যান নজরুল ইসলাম জানান, প্রেমের সম্পর্ক পরিবার থেকে মেনে না নেয়ায় এ ঘটনা ঘটেছে বলে ধারনা করা হচ্ছে।

এব্যাপারে পত্নীতলা থানার অফিসার ইনচার্জ পরিমল কুমার চক্রবর্তী ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, পুলিশ খবর পেয়ে ঘটনাস্থল থেকে মৃতদেহ উদ্ধার করে নওগাঁ মর্গে প্রেরন করেছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.