সুনামগঞ্জে চোরাচালানের মাধ্যমে নিয়ে আসা সোয়া ১৩ লাখ টাকার ভারতীয় কসমেটিকস আটক

সিলেট: সুনামগঞ্জের ডলুরা বর্ডার হাট থেকে বিনা শুল্কে চোরাচালানের মাধ্যমে নিয়ে আসা ভারতীয় কসমেটিকসের একটি বড় ধরণের চালান আটক করেছে বর্ডার গার্ড ব্যাটালিয়ন (বিজিবি) বাংলাদেশ।
শুক্রবার ২৮ বর্ডার গার্ড ব্যাটালিয়ন (বিজিবি) বাংলাদেশ সুনামগঞ্জের নবীনগর বিজিবি বিশেষ ক্যাম্পের টহল দল প্রায় সোয়া ১৩ লাখ টাকা মুল্যের ভারতীয় বিভিন্ন প্রকার কসমেটিকস’র চালানটি আটক করতে সক্ষম হয়।
শুক্রবার রাতে জব্দ তালিকা শেষে ভারতীয় কসমেটিকসগুলো সুনামগঞ্জ শুল্ক কার্যালয়ে জমা দেয়া হয়েছে।
বিজিবি ব্যাটালিয়ন হেডকোয়ার্টারের মিডিয়া সেল জানায়, সদর উপজেলার ডলুরা বর্ডার হাট (সীমান্ত) হাট থেকে চোরাচালানের মাধ্যমে নিয়ে আসা কসমেটিকসের বড় ধরণের ওই চালানটি জানুখালী এলাকার নিকটবর্তী সুরমা নদীর নৌ পথ থেকে শুক্রবার ভোররাতে আটক করা হয়।
আটককৃত ভারতীয় বিভিন্ন প্রকার কসমেটিকস’র মধ্যে রয়েছে, ভারতীয় জনসন (বড়) ১৭৩০৪ পিস, জনসন ছোট ২০০ পিস সাবান, ফিনা সাবান ২৮৮ পিস, জনসন ১০৩৮ বোতল, ডাবর আমলা-২৮৮ বোতল, সেভেন ওয়েল -২১৪ বোতল, সুপার ভাসমল -৩৮৪ বোতল তৈল।
বিজিবির দাবি আটককৃত ভারতীয় কসমেটিকস’র আনুমানিক মুল্য প্রায় ১৩লাখ৩ হাজার ৫৪৪টাকা।
বিজিবির ব্যাটলিয়ন অধিনায়ক লে. কর্ণেল মাকসদুল আলম ভারতীয় কসমেটিকসের চালান আটকের বিষয়টি উল্ল্রেখ করে এ প্রতিবেদককে বলেন, বিজিবি সুনামগঞ্জ ব্যাটালিয়নের অধীনস্থ নারায়নতলা বিওপির বিজিবি দায়িত্বপূর্ণ এলাকায় গড়ে উঠো ডুলুরা-বালাট বর্ডার হাট গাইড লাইন অনুযায়ী বর্ডার হাট এলাকার ৫ কিঃ মিঃ ব্যাসার্ধে বসবাসকারী অধিবাসীগণই কেবলমাত্র বর্ডার হাটে পণ্য ক্রয়-বিক্রয় করার নিয়ম থাকলেও কার্ডবিহীন কিছু-সংখ্যক চোরাকারবারীরা কৌশলে দ্বীর্ঘদিন ধরেই অবৈধ উপায়ে করে বর্ডার হাটে পণ্য ক্রয়-বিক্রয় করছে।
তিনি আরো বলেন, নিয়ম অনুযায়ী বর্ডার হাটে প্রত্যেক কার্ডধারী নির্ধারিত প্রতি হাটে কেবলমাত্র ২০০ (দুইশত) মার্কিন ডলারের সমমূল্য পরিমাণ নিত্য ব্যবহার্য বিভিন্ন ধরনের স্থানীয়ভাবে উৎপন্ন অনুমোদিত পণ্য ক্রয় করার কথা থাকলেও কিছু কিছু স্বার্থান্বেষী/সুবিধাবাদী কার্ডবিহীন চোরাকারবারীরা কৌশলে প্রচলিত আইন লঙ্গন করে মোটা অংকের অর্থ বর্ডার হাটে বিনিয়োগ করছে।
বর্ডার হাটের অন্তরালে বিভিন্ন ধরনের অননুমোদিত চোরাচালানী পণ্য সুনামগঞ্জ জেলা সদর, জেলার তাহিরপুর, বিশ্বম্ভরপুরও জেলার বিভিন্ন উপজেলায়, বিভাগীয় শহর সিলেট, কিশোরগঞ্জ, ভৈরব, নেত্রকোনা, বিভাগীয় শহর ময়মনসিংহ, চট্টগ্রাম ও রাজধানী ঢাকাসহ দেশের অন্যান্য জেলায় অবৈধভাবে পাাচার করে দেশীয় শিল্পে উৎপাদিত কসমেটিকসের বাজার ধ্বংস করে আসছে সংঘবদ্ধ একাধিক স্থানীয় ও বহিরাগত চোরাকারবারী চক্র।,

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.