আওয়ামী লীগের ব্যর্থতার কারণেই বিএনপির জন্ম হয়েছিলো, বললেন মির্জা ফখরুল

অনলাইন ডেস্ক : বিএনপির জন্ম হয়েছিল রাজনৈতিক শূন্যতায়, আবারো সেই শূন্যতায় প্রভাব পরেছে রাজনীতিক অঙ্গনে। তাই দলকে সুসংগঠিত করে, জনগণের সরকার প্রতিষ্ঠা ও চেয়ারপারসনের মুক্তি নিশ্চিত করতে চায় বিএনপি।

রোববার রাজধানীর ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউশনে ‘দলের ৪১ তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে’ বিএনপির নেতারা এসব কথা বলেন।

নেতাকর্মীদের উদ্দেশ্য করে বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেন, খুব অল্প সময়ের মধ্যে আমাদের দল সম্পূর্ণ সংগঠিত হবে। আর যারা গণতন্ত্র বিশ্বাস করে, সেই সমস্ত দলগুলোকে নিয়ে আমরা জনগণের সরকার ও সংসদ গঠন করতে সক্ষম হবো।
দলের স্থায়ী কমিটির সদস্য ড. খন্দকার মোশাররফ হোসেন বলেন, সরকার পতনে আমাদের প্রধান স্লোগান হবে স্বৈরাচার হঠাও দেশ বাঁচাও।

স্থায়ী কমিটির আরেক সদস্য ব্যারিস্টার মওদুদ আহমদ বলেন, আমাদের নেতাকর্মী অনেকেই অস্থির ও হতাশ। অনেকে বলছে, ১২ বছর হলো আর কত। কিন্তু এটা খুব অল্প সময়। প্রয়োজন হলে আরো অপেক্ষা করতে হবে। কিন্তু এই সরকারের পতন হবেই।

স্থায়ী কমিটির সদস্য গয়েশ্বর চন্দ্র রায় বলেন, প্রধানমন্ত্রী বলেছেন, মৃত্যুকে আলিঙ্গন করতে না পারলে খালেদা জিয়ার মুক্তি হবে না। আমাদের ঘরে বসে থাকার সময় নেই।

স্থায়ী কমিটির সদস্য আমির খসরু মাহমুদ চৌধুরী বলেন, আমাদের একতা সৃষ্টি হয়ে গেছে। বাংলাদেশের জনগণ এই একতায় এসে দাঁড়িয়েছে। বিএনপি নির্যাতিত নেতারা এবং যারা ভোট দিতে পারে নাই, তারা আজ একতা বদ্ধ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.