শৃঙ্খলা ভঙ্গকারীদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা: জিএম কাদের

অনলাইন ডেস্ক : জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান জিএম কাদের বলেছেন, ‘শৃঙ্খলা ভঙ্গকারীদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হবে। এটা নিয়ে অস্থির হওয়ার কিছু নেই। জাপা ভাঙেনি। কোনও ভাঙনের মুখে পড়েনি। যেকোনও ব্যক্তি যেকোনও ঘোষণা দিলেই তো তা বাস্তবায়ন হয় না।’

রওশন এরশাদকে দলের চেয়ারম্যান ঘোষণা করায় তাৎক্ষণিকভাবে পাল্টা সংবাদ সম্মেলন করে নিজের জিএম কাদের এ প্রতিক্রিয়া জানান।

তিনি বলেন ‘রওশন এরশাদকে সম্মান করি, যতটুকু শুনেছি, তিনি নিজে থেকে নিজের কথা বলেননি। বৃহস্পতিবার দুপুরে বনানীর চেয়ারম্যান কার্যালয়ে জিএম কাদের এসব কথা বলেন।

তিনি সেখানে এরশাদের বিভিন্ন নির্দেশনা পাঠ করে শোনান। এর আগে বেলা সোয়া ১২টার দিকে গুলশানে রওশন এরশাদের বাসায় এক সংবাদ সম্মেলনে রওশনকে দলের চেয়ারম্যান ঘোষণা করেন তার অনুগতরা।

গঠনতন্ত্রের ২০/ধারা ক উপধারার উদ্ধৃতি করে জিএম কাদের বলেন, ‘আমাকে এরশাদ সাহেব তার অবর্তমানে দলের ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান হিসেবে কাজ করতে নির্বাচিত করেছেন। গঠনতন্ত্রের ২০ ধারার ক উপধারায় বলা আছে, চেয়ারম্যান জাপার যে কোনও ব্যক্তিকে নিয়োগ ও নিজের স্থলাভিষিক্ত করতে পারবেন। এইচ এম এরশাদ আমাকে তার স্থলাভিষিক্ত করে গেছেন। মৃত্যুর আগে আমাকে ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যানের দায়িত্ব দিয়েছিলেন। মৃত্যুর পর কী হবে সেটা গঠনতন্ত্রে বলা নাই।’

তিনি জানান, এরশাদের মৃত্যুর পর প্রথম প্রেসিডিয়ামের বৈঠকে তাকে চেয়ারম্যান হিসেবে অভিনন্দিত করা হয়। তিনি আরও জানান, ‘কাউন্সিল ছাড়া অন্য কাউকে স্থলাভিষিক্ত করা যাবে না। তার (এইচ এম এরশাদ) অবর্তমানে আমাকে স্থলাভিষিক্ত করে গেছেন। ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান নাকি চেয়ারম্যান তা এরশাদ সাহেব বলে গেছেন।’

তিনি বলেন, ‘দলের এমপিদের কাছে জানতে চেয়েছি কার প্রতি তাদের আস্থা আছে। ২৫ জন এমপির মধ্যে ১৫ জন আমার পক্ষে রয়েছেন। এর আগে জাতীয় সংসদে দলের নেতা এরশাদ দিয়েছেন, এমপিদের মতামতের ভিত্তিতেই দিয়েছেন।’

বিরোধী দলীয় নেতার পদ পাওয়া প্রসঙ্গে জিএম কাদের বলেন, ‘আমরা যা করেছি তা আইনসম্মতভাবে করেছি। গঠনতন্ত্র মোতাবেক করেছি। কাউকে ছোট করার জন্য করিনি।’

সাংবাদিকদের প্রশ্নের উত্তরে কাদের এই কথা বলার সময় উপস্থিত নেতাকর্মীরা জাপা নেতা আনিসুল ইসলাম মাহমুদের বিরুদ্ধে স্লোগান দেন। এসময় সংবাদ সম্মেলনে সাবেক মহাসচিব জিয়াউদ্দিন আহমেদ বাবলু, সৈয়দ আবু হাসান বাবলা, মাসুদ উদ্দিন চৌধুরীসহ অনেক নেতাকর্মী।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.