গিনিস বুক অফ ওয়ার্ল্ড রেকর্ডসে নাম লেখাতে চায় নাসিরনগরের শিক্ষার্থী পার্থ দেব

প্রদীপ কুমার দেবনাথ, নাসিরনগর ( ব্রাহ্মণবাড়িয়া) :  টগবগে তরুণ। বয়স ২৪/২৫ বছর। নিজের তৈরি করা কাজের মাধ্যমে সারাবিশ্বে পরিচিত হওয়ার বাসনা তার মনের গভীরে। তাই  Longest Chain of Safety Pins এর ব্যানারে পৃথিবীর সবচেয়ে বড় চেইন তৈরি করলো ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলার নাসিরনগর উপজেলার ফান্দাউক গ্রামের স্বর্গীয় জগদীশ চন্দ্র দেবের বিএসএস পড়ুয়া ছোট ছেলে পার্থ চন্দ্র দেব। পার্থ জানায়, তার বড় ভাই জয়ন্ত চন্দ্র দেব ও তার বৌদির অনুপ্রেরণায় ৪৫ দিনে সে তার চেইন তৈরির কাজ সমাপ্ত করে। এ কাজে সে ২৪১ ঘন্টা ৪২ মিনিট সময় ব্যয় করে। প্রমাণ হিসেবে সে তার সিসি ক্যামেরাকে পুরো সময় তার কাজের জন্য ব্যবহার করে। পুরো কাজটি কারো সাহায্য ছাড়া নিজে নিজেই সম্পন্ন করে সে। আজ সে তার এই কাজটি ফান্দাউক শ্রী শ্রী পাগল শংকর মন্দির প্রাঙ্গণে দুজন সাক্ষী রাজীব আচার্য্য ( প্রভাষক) লাখাই সরকারি কলেজ ও পল্লব হালদার ( সহকারী শিক্ষক)  ফান্দাউক পন্ডিতরাম উচ্চ বিদ্যালয় এবং  সার্ভেয়ার মারজান শাহ্কে সাথে নিয়ে এর পরিমাণ নির্ধারণ করে। এর দৈর্ঘ্য ২৪০১.৮৩ মিটার । এর আগেে ইতিহাসের সবচেয়ে বড় চেইনটি ২০১৮ সালে ভারতের গুজরাটের হার্শা নান ও নাভা নান তৈরি করেছিলেন। তাদের চেইনটি ছিল ১৭৩৩.১ মিটার। যা আজও ওয়ার্ল্ড রেকর্ড । তাদের সেই কীর্তি গিনিস বুক অফ ওয়ার্ল্ড রেকর্ডসে স্থান পায় ২০১৮ সালে । এবার পার্থ তাদের ছাপিয়ে গেছে। তাই গিনিস বুক অফ ওয়ার্ল্ড রেকর্ডসে  পার্থ দেবের নাম আসবে বলে আশাবাদী সে। তার ভাষ্যমতে ১০৭ টি বক্স ২ সে.মি. আকারের  সেফটি পিন সংখ্যায় ১,৮৭,৮২৩ টি একটির পর একটি গেঁথে এ দীর্ঘ চেইনটি তৈরি করেছি। দিনরাত পরিশ্রম করে মাত্র ৪৫ দিনে আমি পৃথিবীর ইতিহাসে সবচেয়ে বড় চেইনটি তৈরি করতে সক্ষম হয়েছি।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.